ওয়াইফাই হ্যাক করুন সেরা ৫টি সফটওয়্যার দিয়ে

Wifi Hack করার জন্য অনেকে অনেক পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকে। ওয়াইফাই হ্যাক করা কতটা সহজ এবং কিভাবে হ্যাকিং করা যায় সেটার নিয়ম জানে না সবাই। অনেকে রুট মোবাইল ফোন দিয়ে ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড হ্যাক করতে চায় বিভিন্ন সফটওয়্যার দ্বারা। কিন্তু এর জন্য আপনাকে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করতে হবে। রুট ছাড়াই WiFi Password শো করে বের করা খুব একটা সহজ কাজ না পিসি ছাড়া। যেকোনো ওয়াইফাই নন রুট পদ্ধতিতে হ্যাক করা বা পাসওয়ার্ড দেখা সম্ভব হয় না।

কিছু উপায় রয়েছে যার মাধ্যমে ওয়াইফাই হ্যাক করা যায়। কম্পিউটার দিয়ে অ্যাপস ছাড়াই wifi password দেখা যায় এটা হয়তো অনেকেই জানে না। তাই আমি আজকে আপনাদের সাথে ওয়াইফাই হ্যাক করা নিয়ে আলোচনা করব।

ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য আপনাকে বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করতে হবে। ইন্টারনেটে বিভিন্ন অ্যাপস রয়েছে Wifi Hack করার জন্য এবং এর মধ্যে কিছু এপস কাজ করে আর বাকিগুলো করে না।

আপনি মোবাইলে প্লেস্টোরে অনেক ওয়াইফাই হ্যাকিং সফটওয়্যার পাবেন। কিন্তু অনেকে আছেন সেগুলোর ব্যবহার জানেন না, কিভাবে wifi hack করা যায় এবং কি কি করতে হয়।

আমি আজকে আপনাদের কয়েকটি উপায় বলব যেগুলোর মাধ্যমে আপনি ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য চেষ্টা করতে পারেন।

আরো পড়ুন-

কম্পিউটার দিয়েও ওয়াইফাই হ্যাক করা যায় এবং পাসওয়ার্ড বের করা যায় এর জন্য আপনাকে রাউটারের পিন কোড লাগবে।

অর্থাৎ আপনি যে ওয়াইফাই হ্যাক করতে চান সেই রাউটারের পেছনে একটি পিন কোড থাকে সেটা লাগবে।

মোবাইলে ওয়াইফাই হ্যাক করা যায় আসলে সেটা হ্যাকের পর্যায় পরে না। আপনি যেকোনো ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য আপনাকে একটি তথ্য হলেও জানা থাকতে হবে।

ইন্টারনেটে বিভিন্ন হ্যাকার রয়েছে যারা বিভিন্ন কিছু হ্যাক করে থাকে এর জন্য তারাও বিভিন্ন ঝুঁকি নিয়ে তথ্য খোঁজার চেষ্টা করে আগে। আপনাকেও একটি তথ্য জেনে নিতে হবে আর সেটা হচ্ছে রাউটারের পিন কোড।

ওয়াইফাই হ্যাক নিয়ে কিছু কথা

আসলে ইন্টারনেটে অনেক কনটেন্ট পাবেন এই বিষয় নিয়ে কিন্তু অনেকেই বলে থাকে কোনো তথ্য ছাড়াই wifi hack করা যায়। কিন্তু এটা এক মাত্র তারাই করতে পারে যারা প্রফেশনাল হ্যাকার এবং যারা হ্যাকিং সম্পর্কে দক্ষ্যতা অর্জন করেছে।

কিছু কিছু সফটওয়্যার রয়েছে যেগুলোর মধ্যে হাজার হাজার পিনকোড এবং পাসওয়ার্ড দেওয়া থাকে। এবং যারা এই এপস গুলো দিয়ে ওয়াইফাই হ্যাক করার চেষ্টা করে অনেকেরটা হয়ে যায় এর কারনটা কি? আমি বলছি।

অনেকের রাউটারের পিন কোড খুব দুর্বল এবং পাসওয়ার্ড সহজ ভাবে দেওয়া থাকে। আর এর জন্য অ্যাপে থাকা পিন কোড এবং পাসওয়ার্ডের সাথে যাদেরটা মিলে যায় সেগুলো হ্যাক হয়ে যায়, তাই বলে যেকোনো ওয়াইফাই হ্যাক করা যায় না।

অনেক রাউটার আছে যারা সব কিছু খুব কঠিন ভাবে লক করে রাখে যার জন্য তাদের রাউটারে অন্যকেউ প্রবেশ করতে পারে না। যে পদ্ধতি গুলো দ্বারা ওয়াইফাই হ্যাক করা যায় সেগুলো আপনি একটু পরেই জানতে পারবেন।

অনেকে আছে ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য মোবাইল রুট করে থাকে, কিন্তু আপনি হয়তো জানেন না মোবাইল রুট করলে আপনার মোবাইলের জন্য অনেক ক্ষতিকর।

রুটকরা মোবাইল ফোন বেশি দিন টিকে না, খুব দ্রুতই নষ্ট হয়ে যায়। তাই আমি বলব wifi hack করার জন্য মোবাইল রুট করার চেষ্টা করবেন না।

কেন আমরা ওয়াইফাই হ্যাক করে থাকি? আসলে wifi hacking করে থাকে অনেকে শখে আবার অনেকে করে এমবি বেশি খরচ হয় বলে।

আরো পড়ুন-

আপনি শহর অঞ্চলে অনেক জায়গায় ফ্রি ওয়াইফাই দেখতে পারবেন। এটা আপনার কাছে আনন্দের বিষয় হতে পারে, কিন্তু আমাদের কাছে নয়।

কারণ যারা ফ্রি ওয়াইফাই দিয়ে বিভিন্ন ডিভাইস কানেক্ট করে নেয় তারা চাইলেই আপনার ডিভাইসের সকল তথ্য জেনে নিতে পারে আপনার অজান্তেই।

তাই যেখানে সেখানে ফ্রি ওয়াইফাই বা হ্যাক করে চালানোর চেষ্টা করবেন না। আপনার বাড়ির আশেপাশে যে ওয়াইফাই গুলো আছে সেগুলো চলানোর জন্য চেষ্টা করতে পারেন।

ইউটিউবে আপনি এই হ্যাকিং বিষয় নিয়ে অনেক ভিডিও দেখতে পারবেন কিন্তু সব ভিডিও সঠিক নয়, কিছু ভিডিও ভুয়া। তাহলে চলুন দেখে নেই wifi hack করার উপায় সম্পর্কে।

১/ ওয়াইফাই হ্যাক Wps Wpa Tester দিয়ে

রুট ছাড়া ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য আপনি এই অ্যাপসটি ব্যবহার করতে পারেন। এই অ্যাপটি দিয়ে অনেক কিছু করা যায়, আপনি এটা দিয়ে দেখতে পারবেন কোন ওয়াইফাই গুলো হ্যাক করা যাবে।

এটার মধ্যে কিছু পিনকোড দেওয়া রয়েছে, আপনি যে রাউটারে প্রবেশ করতে চাচ্ছেন সেই রাউটারের পিনকোডের সাথে এই অ্যাপের পিনকোডের সাথে মিলে গেলে wifi hack হয়ে যাবে।

এছাড়াও আপনি যদি ভিকটিমের রাউটারের পিনকোড সংরক্ষণ করতে পারেন তাহলে পিনকোড দিয়ে ওয়াইফাই হ্যাক করতে পারবেন।

এই সাফটওয়ারটি ওপেন করার পর আপনার আশেপাশে যতগুলো wifi রয়েছে সব গুলো দেখা যাবে। আপনি Hack করার পর ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড বের করার নিয়ম যদি না জানেন তাহলে পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন না।

আপনার মোবাইলটি যদি Lollipop বা তার উপরের ভার্সনের হয়ে থাকে তাহলে রুট ছাড়াই পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন। আর যদি Lollipop ভার্সনের নিচে হয়ে থাকে তাহলে ডিভাইস রুট করে Password দেখতে হবে।

[button color=”orange” size=”medium” link=”https://play.google.com/store/apps/details?id=com.tester.wpswpatester&hl=en” icon=”fa-download” target=”true”]App Download[/button]

২/ ওয়াইফাই হ্যাক WiFi Master Key দিয়ে

Wifi হ্যাকিং সফটওয়্যার গুলোর মধ্যে এই অ্যাপটি সবচেয়ে সুন্দর এবং হেল্পফুল। এটা দিয়ে আপনি বিভিন্ন ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন খুব সহজেই।

আপনি যখন এই এপসটি ব্যবহার করবেন তখন ওয়াইফাই এবং লোকেশন অন করে রাখবেন। সফটওয়্যারটিতে প্রবেশ করার পর আশেপাশের বিভিন্ন ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক দেখতে পারবেন এবং যেটার সাথে কানেক্ট হতে চান সেটা ক্লিক করবেন।

পাসওয়ার্ড যদি সহজ ভাবে দেওয়া থাকে তাহলে অটোমেটিক কানেক্ট হয়ে যায়ে যাবে। এই অ্যাপটি দিয়ে আপনি ফ্রি ওয়াইফাই খুঁজতে পারবেন অর্থাৎ যারা ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার করার সুযোগ দেয় সেই নেটওয়ার্ক গুলো দেখতে পারবেন।

এছাড়াও কাছাকাছি হটস্পট গুলো অনুসন্ধান করতে পারবেন। ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড হ্যাক করার সফটওয়্যার গুলো সব সময় সঠিক ভাবে কাজ করে না।

কারণ বর্তমানে রাউটার গুলোর অনেক শক্ত সিকিউরিটি থাকে, যদি সহজ কয়েকটায় থাকে তাহলে সেগুলোতে কানেক্ট করতে পারবেন।

[button color=”orange” size=”medium” link=”https://play.google.com/store/apps/details?id=com.halo.wifikey.wifilocating&hl=en” icon=”fa-download” target=”true”]App Download[/button]

৩/ ওয়াইফাই হ্যাক AndroDumpper দিয়ে

ওয়াইফাই হ্যাক রুট ডিভাইস দিয়ে করার জন্য আপনি এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। এটা ইনস্টল করে ওপেন করার পর আপনি আশেপাশের সব ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক দেখতে পারবেন এবং কোন নেটওয়ার্কটি দুর্বল বা শক্তিশালী সেটা বুঝতে পারবেন।

এই এপস দিয়ে পিনকোডের মাধ্যমে wifi hack করা হয়। সফটওয়্যারের মধ্যে শত শত পিনকোড দেওয়া রয়েছে, যখন আপনি অ্যাপের পিনকোড গুলো দিয়ে হ্যাক করার জন্য চেষ্টা করবেন তখন আপনার ভিকটিমের রাউটারের সাথে Pincode মিলে গেলে ওয়াইফাই হ্যাক হয়ে যাবে।

আর আপনি চাইলে আলাদা ভাবে পিনকোড দিয়ে ট্রাই করতে পারেন। এই অ্যাপটি থেকে সম্পূর্ণ ভাবে সেবা পেতে আপনার ডিভাইসটি রুট হতে হবে এবং রুটের মাধ্যমে হ্যাক করার পর পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন।

[button color=”orange” size=”medium” link=”https://androdumpper.en.uptodown.com/android” icon=”fa-download” target=”true”]App Download[/button]

৪/ WiFi Pass Key

Wifi Hack করার সহজ উপায় গুলোর মধ্যে এই অ্যাপটি অন্যতম ভূমিকা পালন করে। এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন।

কাছাকাছি কোনো ওয়াইফাই নেটওয়ার্ক থাকলে এবং কোনো Free Wifi Network থাকলে সেটা খুব সহজেই সনাক্ত করতে পারবেন।

এছাড়াও কোনো ফ্রি ওয়াইফাই নিরাপদ ভাবে ব্যবহার করা যাবে কি না সেটাও বুঝতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে।

আপনি যখন কোনো আপরিচিত স্থানে ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন তখন এই অ্যাপটি আপনাকে বিভিন্ন ঝুকিপূর্ণ Wifi Network থেকে রক্ষা করবে।

এভাবে আপনি এই অ্যাপটি দিয়ে রুট ছাড়া ওয়াইফাই হ্যাক করতে পারবেন। অ্যাপটি ওপেন করার পর আপনি লোকেশন চালু রাখবেন এবং ইন্টারনেট সংযুক চালু রাখবেন।

[button color=”orange” size=”medium” link=”https://play.google.com/store/apps/details?id=com.cl.wifipassword.share&hl=en” icon=”fa-download” target=”true”]App Download[/button]

৫/ WPS Connect

রুট মোবাইল দিয়ে ওয়াইফাই হ্যাক করার জন্য এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারেন। যারা কোনো ভাবে ভিকটিমের রাউটারের পাসওয়ার্ড জেনে নিতে পারবেন তারা এই অ্যাপের মাধ্যমে Wifi Hacking করতে পারবেন।

কিছু কিছু ডিভাইস রুট অনুমতি দেওয়া থাকে চাইলে রুট করে wifi password বের করতে পারবেন। এই অ্যাপটি এক সময় প্লেস্টোরে পাওয়া যেতো কিন্তু এখন আর পাওয়া যায় না। আপনারা এটা ইন্টারনেটে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে খুঁজে পাবেন।

এই অ্যাপটি আপনি সব ভার্সনে ব্যবহার করতে পারবেন না, এর জন্য আপনাকে Android 4.0 বা তার চেয়েও বেশি প্রয়োজন হবে।

নিজের রাউটার দুর্বল কি না “WPS Connect” অ্যাপস দ্বারা জেনে নিতে পারবেন। আসলে আপনি ইন্টারনেটে wifi হ্যাকিং সফটওয়্যার অনেক পাবেন কিন্তু রাউটারের পিনকোড ছাড়া সব গুলো সঠিক ভাবে কাজ করে না।

[button color=”orange” size=”medium” link=”https://wps-connect.en.uptodown.com/android” icon=”fa-download” target=”true”]App Download[/button]

কম্পিউটার দিয়ে ওয়াইফাই হ্যাক

যারা পিসি দিয়ে ওয়াইফাই হ্যাক করতে চান তারা দুইটি সফটওয়্যার ডাউনলোড করে নিতে পারেন। অ্যাপস দুটি হল-১। Dumpper ২। JumpStart + WinPcap এগুলো দিয়ে আপনি নন রুট WiFi Hack করতে পারবেন।

এপস দুটি পিসিতে ইন্সটল করার পর বিভিন্ন ভাবে ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড হ্যাক করতে পারবেন। অ্যাপের মধ্যে শত শত পিনকোড দেওয়া রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি অটোমেটিক স্ক্যান করতে পারবেন রাউটারের পিনকোড।

যখন ভিকটিমের রাউটারের পিনকোডের সাথে মিলে যাবে তখন সাথে সাথে Wifi connect হয়ে যাবে। এছাড়াও আপনি যদি রাউটারের পিনকোড সংরক্ষণ করতে পারেন তাহলে সেটার মাধ্যমেও Hack করতে পারবেন। Hack করার পর WiFi Password দেখার জন্য আপনি পিসি সেটিংএ যেতে পারেন।

আর্টিকেলটি যদি ভাল লাগে তাহলে কমেন্ট ও শেয়ার করবেন ধন্যবাদ!

Add Comment